Connect with us

Hi, what are you looking for?

Newsbd71Newsbd71

বাংলাদেশ

উওরায় এমএলএম প্রতারণা

মোঃহাসান : উওরায় নতুন কৌশলে শুরু হয়েছে (এমএলএম) প্রতারণা । চলছে নিষিদ্ধ ঘোষিত ডেসটিনির আদলে গড়ে ওঠা কোম্পানির তৎপরতা। কৌশল পাল্টে তারা এখন জমি কিস্তিতে বিক্রি,প্লট কিস্তিতে, বিভিন্ন ইলেকট্রিক পণ্য ,বিনিয়োগকারীকে অধিক মুনাফা সহ বিভিন্ন কৌশলে এই ব্যবসা পরিচালনা করছে। স্বল্প সময়ে বিত্তবান হওয়ার নেশায় সেখানে অর্থ বিনিয়োগ করে প্রতারিত হয়েছেন অনেককেই। প্রশাসনের অভিযানে এসব চক্রের একাধিক সদস্য গ্রেপ্তার হওয়ার পর ও থামছেনা তাদের প্রতারণা।উওরার সেক্টর-৬ সেবা আইডিয়াল লিভিং লিমিটেড, সেক্টর-১২ মেহেদী প্রোপার্টিজ।আজমপুর কসমো সিএনজির পেছনে সেক্টর ৭ ব্রাইট ফিউচার হোল্ডিং লিমিটেড।আবাসনের অন্তরালে, এই সকল প্রতিষ্ঠান দীর্ঘদিন যাবৎ উত্তরায় প্রতারণা করে বেড়াচ্ছে।

নাম না জানাতে ইচ্ছুক, প্রতারণার শিকার হয়ে একজন গ্রাহক বলেন, ‘আমি ব্রাইট ফিউচার হোল্ডিং লিমিটেড কোম্পানিতে ৫ লক্ষ টাকা এক বছরের জন্য বিনিয়োগ করেছিলাম।আমাকে তার দ্বিগুণ দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তারা আজও পর্যন্ত টাকা ফেরত দেয়নি।

টাকা রোজগারের মাধ্যম হিসেবে তারা প্রথমে কিছু টাকা নিবে প্লট কেনা বাবদ। প্রতিমাসে কিস্তি দিতে হবে বলে বাধ্য করে। এরপর আরও কয়েকজন সদস্য ভর্তি করাতে বলায় আমি প্রতারণা বুঝতে পারি। এই খপ্পর থেকে কোনক্রমেই বের হতে পারছি না।চলে আসলে আমার পাওনা টাকা হারাতে হবে।

আরেক ভুক্তভোগী অফেরৎযোগ্য একটি জামানত দিয়ে সদস্য হন মেহেদী প্রোপার্টিজ নামে একটি আবাসন কোম্পানিতে।

৫০ জন সদস্য করতে পারলে আরএমও (রিয়েল মার্কেটিং অফিসার) পদ দেওয়া হবে বলে জানায়। এটি তাদের একটি কমিশন ভিত্তিক পদ। যখন বুঝতে পারি প্রতারকের খপ্পরে পড়েছি, তখন আর ব্যবসা করব না জানালে তারা বিভিন্নভাবে হুমকি দেয়।

নাম প্রকাশ অনিচ্ছুক সেবা আইডিয়াল লিভিং লিমিটেড এক কর্মচারী জানায়, শিক্ষার্থীদের টার্গেট করে এই ব্যবসা পরিচালিত হচ্ছিল। প্রত্যেক শিক্ষার্থীর কাছ থেকে ১০,০০০টাকা করে নিয়ে পরে তাদের এই ব্যবসায় দ্রুত ধনী হওয়ার লোভ দেখানো হতো। ২০১৯ সালের জানুয়ারিতে যাত্রা শুরু করে প্রতিষ্ঠানটি।এর সাবেক কর্মী কামাল বলেন, টাকা আয়ের অলীক স্বপ্ন দেখাতেন এখানকার ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী নুরুল ইসলাম। প্রতিষ্ঠানটিতে ১০,০০০ হাজারের মতো সদস্য রয়েছে, যাদের প্রায় ৮০ লক্ষ টাকা হাতিয়েছে চক্রটি।

ডেসটিনির একসময়ের গ্রাহক রিপন বলেন, এমএলএম কোম্পানির প্রতারণা নতুন কিছু নয়। নানা প্রলোভন দেখিয়ে এরই মধ্যে দেড় শতাধিক কোম্পানি হাজার হাজার কোটি টাকা জনগণের কাছ থেকে হাতিয়ে নিয়ে উধাও হয়ে গেছে। ডেসটিনি, ইউনিপে-টু, স্পিক এশিয়ার প্রতারণা সবার জানা আছে। এরকম কোম্পানিগুলোর বিরুদ্ধে প্রশাসনের আরও অভিযান পরিচালনা করা দরকার।

নিউজবিডি৭১/ এম কে / ০২ অক্টোবর ২০২০

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ফেসবুকে ২৪ লক্ষের পরিবার

বাংলাদেশ

বাংলাদেশ

গত দুই মাসের মধ্যে তিন দফা বন্যার কবলে পড়েছে সিলেট-সুনামগঞ্জ৷ তবে এবারের বন্যা ভয়াবহ রূপ নিয়েছে৷ সিলেটে কেন এত ঘন ঘন বন্যা? গবেষকরা বলছেন,...

কপিরাইট Ⓒ ২০১২-২০২১ নিউজবিডি৭১.নেট । সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। বাড়ী- ৪৯ (১ম তলা), রোড- ১২, সেক্টর-১১, উত্তরা মডেল টাউন, ঢাকা-১২৩০, বাংলাদেশ। প্রকাশক- মোহাম্মদ মানিক খান