Connect with us

Hi, what are you looking for?

Newsbd71Newsbd71

লিড

খুলনার ৪ টি হাসপাতালে করোনায় ২২ জনের মৃত্যু

খুলনা : খুমেক হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার জানিয়েছেন, হাসপাতালটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় আট জন রেড জোনে এবং এক জন ইয়েলো জোনে মারা গেছেন। এর মধ্যে রেড জোনে করোনা পজিটিভ রোগীরা ভর্তি হন। এ ছাড়া করোনার উপসর্গ নিয়ে রোগীরা ভর্তি হন ইয়েলো জোনে। রেড জোনে মারা যাওয়া আট জন হলেন খুলনার মকবুল (৮০), নিলুফা (৫৫), মাহবুব (৫৫), দিপক (৬২), রাজিব (২৮), আবদুর রহিম (৬৫), বাগেরহাটের মেহেরুন্নেছা (৫৩) ও শুকলা (২৮)।

অন্যদিকে, বেসরকারি গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চেয়ারম্যান ডা. গাজী মিজানুর রহমান জানিয়েছেন, করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালটিতে আট জনের মৃত্যু হয়েছে। তাঁরা হলেন খুলনার শারমিন আক্তার (৬২), আব্দুল কাদের (৬১), যশোরের নুরজাহান (৭৫), দুলাল চন্দ্র, বাগেরহাটের সুভাষ দত্ত (৬১), চুয়াডাঙ্গার আবদুর রশিদ (৪৫), পিরোজপুরের সখিনা বেগম (৬৫) ও নড়াইলের নাসিমা বেগম (৫৬)।
খুলনার ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের মুখপাত্র ডা. কাজী রাশেদুল জানিয়েছেন, করোনায় হাসপাতালটিতে আরও দুজন মারা গেছেন। তাঁরা হলেন খুলনার আনসার শেখ (৬০) ও আমেনা বেগম (৮০)।

অপরদিকে, শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের চিকিৎসক প্রকাশ দেবনাথ জানান, হাসপাতালটির করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিন জন মারা গেছেন। তাঁরা হলেন খুলনার আবুল বাসার মোল্লা (৪৬), রিজিয়া বেগম (৬৫) ও ঝিনাইদহের সিরাজুল ইসলাম।

খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালের ভাইস প্রিন্সিপাল ডা. মেহেদী নেওয়াজ জানান, গতকাল বুধবার ৩৭৪টি নমুনা পরীক্ষা করে ১৬২ জনের করোনা শনাক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে খুলনার ২৬২ জনের মধ্যে ১১৮ জনের করোনা শনাক্ত করা হয়। শনাক্তের হার ৪৫ দশমিক শূন্য ৩ শতাংশ।

এম কে

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ফেসবুকে ২৪ লক্ষের পরিবার

সর্বাধিক পঠিত

বাংলাদেশ

কালচার

সিলেটে বন্যা দুর্গতদের মাঝে ত্রাণ সহায়তা প্রদান করেছে স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন ডে লাইফ সিল্ক ফাউন্ডেশন। সম্প্রতি নিজেদের স্বেচ্ছাসেবীদের নিয়ে সংগঠনটির প্রতিনিধিরা হাজির হয় সিলেটের...

কপিরাইট Ⓒ ২০১২-২০২১ নিউজবিডি৭১.নেট । সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। বাড়ী- ৪৯ (১ম তলা), রোড- ১২, সেক্টর-১১, উত্তরা মডেল টাউন, ঢাকা-১২৩০, বাংলাদেশ। প্রকাশক- মোহাম্মদ মানিক খান