Connect with us

Hi, what are you looking for?

Newsbd71Newsbd71

বাংলাদেশ

দেশে লকডাউন ৩ মাস থাকলে দারিদ্র্যর হার দ্বিগুণ হবে

দেশে লকডাউন ৩ মাস থাকলে দারিদ্র্যর হার দ্বিগুণ হবে
দেশে লকডাউন ৩ মাস থাকলে দারিদ্র্যর হার দ্বিগুণ হবে

নিউজবিডি৭১ডটনেট
ঢাকা : যে গতি এতদিন চলে আসছিল তা এবার বিপরীতমূখি হচ্ছে দেশে দারিদ্রের হার কমার । এ অবস্থার সৃষ্টি করেছে প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস। দেশে চলমান লকডাউন (অবরুদ্ধ) ৩ মাসের কোঠায় পড়লে দারিদ্রের হার দ্বিগুন হবে বলে আশঙ্কা করেছে অর্থনীতি গবেষণা সংস্থা সানেম। শুক্রবার সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে নিজেদের গবেষণার ফলাফল তুলে ধরে সাউথ এশিয়ান নেটওয়ার্ক অন ইকোনমিক মডেলিং (সানেম)।

বাংলাদেশ গত দেড় দশক দারিদ্রের হার নামিয়ে আনা সম্ভব হয়েছিল। দেশে বর্তমানে মোট জনগোষ্ঠীর ২০ দশমিক ৫ শতাংশ মানুষ দরিদ্র। লকডাউনের কারণে তিন মাস পর ২০০৫ সালের মতো দারিদ্রের হার ৪০ শতাংশ ছাড়িয়ে যাবে। এমনটি আশঙ্কা করছে সানেম।

মার্চের শেষে বাংলাদেশে প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস বা কোভিড-১৯ এর প্রাদূর্ভাব দেখা দিলে পুরোদেশ কার্যত লকডাউন করে সরকার। এতে স্বল্প আয়ের এবং শ্রমজীবী মানুষের নাভিশ্বাস শুরু হয়।

গবেষণায় বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো সর্বশেষ খানার আয় ও ব্যয় নির্ধারণ জরিপের উপাত্ত ব্যবহার করে অর্থনৈতিক মডেলের মাধ্যমে তুলনামূলক বিশ্লেষণের কথা জানিয়েছে সানেম। গবেষণার ফলাফলে আরও বলা হয়, তিন মাসের লকডাউনের ফলে পরিবারের আয় ন্যূনতম এক-চতুর্থাংশ কমে যাবে।

সানেম’র বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, এক মাস পেরিয়ে আসা এই লকডাউন তিন মাস স্থায়ী হলে দেশের মানুষের আয় ২৫ শতাংশ কমে যেতে পারে। যে কোনো দুর্যোগে আয়ের ২৫ শতাংশ নেতিবাচক প্রভাব পড়লে বাংলাদেশে দারিদ্র্যের হার ৪০ দশমিক ৯ শতাংশে পৌঁছাবে। নতুন করে আরও ২০ দশমিক ৪ শতাংশ মানুষ দরিদ্র হবে।

অর্থনৈতিক মডেলের ফলাফল অনুযায়ী, বাংলাদেশে নতুন যেসব মানুষ দারিদ্র্যসীমার নিচে নামতে পারে তাদের মধ্যে ফসল উৎপাদন, গবাদিপশু লালন-পালন ও মাছ উৎপাদন খাত থেকে ৪৩ শতাংশ। তৈরি পোশাকসহ অন্যান্য শিল্প খাতের ১৬ শতাংশ, খুচরা ব্যবসা ১১ শতাংশ, যোগাযোগ ব্যবস্থার ১০ শতাংশ এবং নির্মাণ খাতের ৭ শতাংশ।

গবেষণার ফলাফল অনুযায়ী, দেশের ৪০টি জেলার দারিদ্র্য হার জাতীয় হারকে ছাড়িয়ে যেতে পারে। যেমন সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে রাঙামাটি। এই জেলায় নতুন করে ৩০ দশমিক ৯ শতাংশ মানুষ নতুন করে দরিদ্র্য হবে।এভাবে ময়মনসিংহে ৩০ দশমিক ২ শতাংশ, সুনামগঞ্জে ২৮ দশমিক ৭ শতাংশ, কক্সবাজারে ২৭ দশমিক ৫ শতাংশ, নীলফামারিতে ২৭ দশমিক ২ শতাংশ, নড়াইলে ২৭ দশমিক ২ শতাংশ, চট্টগ্রামে ২৬ দশমিক ৯ শতাংশ, নেত্রকোনায় ২৫ দশমিক ৯ শতাংশ, চুয়াডাঙ্গায় ২৫ দশমিক ৮ শতাংশ, শেরপুরে ২৫ দশমিক ৬ শতাংশ, বরগুনায় ২৫ দশমিক ৫ শতাংশ এবং শরীয়তপুরে ২৫ দশমিক ৩ শতাংশ মানুষ এই দুর্যোগে নতুনভাবে দরিদ্র হতে পারে।

অন্যদিকে ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুর, মুন্সিগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া এবং নরসিংদী জেলায় এ দুর্যোগের অর্থনৈতিক নেতিবাচক প্রভাব অপেক্ষাকৃত কম হতে পারে। যদিও প্রাথমিক পর্যায়ে এসব জেলায় করোনাভাইরাস এর প্রকোপ অপেক্ষাকৃত বেশি। প্রকৃতপক্ষে এসব জেলায় অনুমিত আয় ২৫ শতাংশেরও বেশি কমতে পারে।

নিউজবিডি৭১/এম কে/ ২ মে ২০২০

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ফেসবুকে ২৪ লক্ষের পরিবার

সর্বাধিক পঠিত

বাংলাদেশ

কালচার

সিলেটে বন্যা দুর্গতদের মাঝে ত্রাণ সহায়তা প্রদান করেছে স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন ডে লাইফ সিল্ক ফাউন্ডেশন। সম্প্রতি নিজেদের স্বেচ্ছাসেবীদের নিয়ে সংগঠনটির প্রতিনিধিরা হাজির হয় সিলেটের...

কপিরাইট Ⓒ ২০১২-২০২১ নিউজবিডি৭১.নেট । সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। বাড়ী- ৪৯ (১ম তলা), রোড- ১২, সেক্টর-১১, উত্তরা মডেল টাউন, ঢাকা-১২৩০, বাংলাদেশ। প্রকাশক- মোহাম্মদ মানিক খান