মসজিদে ঢুকে দেশটির মান্ডালে রাজ্যের মহা অংমায়া শহরে গুলি চালিয়েছে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী।

বৃহস্পতিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে বলে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম মিয়ানমার নাউ জানিয়েছে।

গুলিতে কো হতেত নামে ২৮ বছরের এক তরুণ নিহত হয়েছে। এছাড়া আহত হয়েছে আরও দুজন।

মিয়ানমার নাউ জানিয়েছে, কো হতেত ও কয়েক জন সেহরি খাওয়ার পর শহরের সুলে মসজিদে ঘুমিয়েছিল। স্থানীয় সময় সকাল ১০টা সেনাবাহিনী মসজিদের ভেতরে হামলা চালায়। ঝড়ো গতিতে প্রবেশের পরপর তারা গুলি চালাতে শুরু করে। কো হতেতের বুকে গুলিবিদ্ধ হয় এবং ঘটনাস্থলেই সে মারা যায়।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, কো হতেত একটি গাড়ি সারাইয়ের দোকানে কাজ করতেন। বৃহস্পতিবার বিকেলে তার দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

মসজিদ থেকে অন্তত আরও পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে। এদের মধ্যে ১০, ১১ ও ১৬ বছরের তিন শিশু রয়েছে। যারা মসজিদের ভেতরে ঘুমিয়ে ছিল।

এদিকে, বৃহস্পতিবার সকালে স্বাস্থ্যকর্মীদের একটি বিক্ষোভে গুলি চালিয়েছে। মিছিল শুরু করার জন্য সারিবদ্ধভাবে দাঁড়ানো অবস্থায় তাদের ওপর হামলা চালানো হয়। এখন থেকে অন্তত ১৬জনকে আটক করা হয়েছে।

সাগাইং এলাকা থেকে বিক্ষোভের নেতা ওয়াই মোয়ে নাইংকে সাদা পোশাকধারীরা তুলে নিয়ে গেছে। তিনি একটি মিছিলে ছিলেন। ২৬ বছরের এই মুসলিম অ্যাক্টিভিস্ট মোটরসাইকেলে করে মিছিলে থাকার সময় তুলে নেওয়া হয়। এসময় আরেক নারী বিক্ষোভকারীকেও তুলে নিয়ে যায় ওই কর্মকর্তারা।

প্রসঙ্গত, গত পহেলা ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের নির্বাচিত সরকারকে হটিয়ে ক্ষমতা দখল করে সেনাবাহিনী। এরপর থেকে দেশটিতে অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভ চলছে। সেনাদের গুলি ও নির্যাতনে এ পর্যন্ত সাত শতাধিক মানুষ নিহত হয়েছে।