সিরাজগঞ্জ রায়গঞ্জ অবৈধ মেহেদী কারখানা সিলগালা এবং ভেজাল মিষ্টি ব্যবসায়ীকে ৩০ হাজার অর্থদন্ড করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

সোমবার সকাল ১০ টায় জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ফয়সাল আহমেদ নেতৃত্ব ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হয় । অভিযানে সহয়তা করেন সেনেটারী ইন্সেপেক্টর আলী নওয়াজ চৌধুরী,র‌্যাব-১২ এর একটি চৌকষ আভিযানিক দল এবং পুলিশ সদস্য।

ভ্রাম্যমাণ আদালতে সূত্রে জানা যায় ,সোমবার গোপন সংবাদে ভিত্তিতে রায়গঞ্জ উপজেলার সোনাখাড়া ইউনিয়ের ভূইয়ট গ্রামে দীর্ঘদিন ধরে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে দুধের ক্রীম কেটে বাকি অংশ দিয়ে ভেজাল দই ও মিষ্টি তৈরি করে বাজারে সরবারহ করার দায়ে মৃত শাহাদত হোসেনের ছেলে ইসমাইল হোসেনকে ৩০ হাজার টাকা অর্থ দন্ড করা হয়। অপর দিকে ভূইয়াগাঁতীতেবিপুল পরিমাণ নকল মেহেদী কেমিক্যাল, রং, রাসায়নিক উপাদান , মেহেদী মজুদ রাখা, বিভিন্ন উপকরণ পাওয়া এবং মালিক না থাকায় প্রতিষ্ঠানটি সিলগালা করা হয়।

জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ফয়সাল আহমেদ জানান, ‘সরাসরি মেহেদি গাছ থেকে পাতা সংগ্রহ করে যারা নিজেরা মেহেদি ব্যবহার করে তাদের এ ধরনের ক্ষতির ঝুঁকি থাকে না। কিন্তু বাজারে নকল ও ভেজাল অনেক টিউব মেহেদি বেচা-কেনা হয়। এসবের মধ্যে অনেক ক্ষেত্রে প্রাকৃতিক মেহেদির লেশমাত্র থাকে না, বরং বিষাক্ত নানা রাসায়নিক রং দিয়ে এই মেহেদি তৈরি করে বাজারজাত করা হয়।তাই ধরনের নকল মেহেদী কেনা থেকে বিরত থাকবেন সবাই । জনস্বার্থে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।