Connect with us

Hi, what are you looking for?

Newsbd71Newsbd71

বাণিজ্য

স্বর্ণের দাম ৮ বছরে রেকর্ড

প্রথমবারের মতো বৈধভাবে স্বর্ণ আমদানি
প্রথমবারের মতো বৈধভাবে স্বর্ণ আমদানি

ঢাকা : করোনায় আন্তর্জাতিক বাজারে গত কয়েক দিনে দাম বাড়ার প্রবণতা অব্যাহত থাকায় মঙ্গলবার প্রতি আউন্স স্বর্ণের দাম রেকর্ড ১৭৮০ ডলার ছাড়িয়েছে।

করোনার প্রকোপের কারণে বিনিয়োগকারীদের একটি অংশ নিরাপদ বিনিয়োগের জন্য স্বর্ণ কিনে মজুত করছে। ফলে আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণের দাম বাড়ছে।

মহামারি করোনার প্রেক্ষিতে চলতি বছরের শুরু থেকেই স্বর্ণের দাম বাড়তে শুরু করে। গত বছরের শেষ দিকে আন্তর্জাতিক বাজারে প্রতি আউন্স স্বর্ণের দাম ছিল ১৪৫৪ ডলার। এরপর করোনার প্রকোপের মধ্যে ফেব্রুয়ারিতে ১৬৬০ ডলারে ওঠে।

মার্চে আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণের দামে বড়পতন হয়। এক ধাক্কায় দাম কমে প্রতি আউন্স ১৪৬৯ ডলারে নেমে আসে।

হু হু করে দাম বেড়ে মে মাসে প্রতি আউন্স স্বর্ণের দাম রেকর্ড ১৭৪৮ ডলারে ওঠে। এরপর ছোটখাটো উত্থান-পতন হলেও সম্প্রতি টানা বাড়ছে স্বর্ণের দাম। ফলে প্রতিদিনই নতুন নতুন রেকর্ড হচ্ছে।

চলতি সপ্তাহের দুই কার্যদিবসের প্রতি কার্যদিবসেই স্বর্ণের দাম বেড়েছে। তবে মঙ্গলবার (৩০ জুন) বড় উত্থান হয়েছে। একদিনে প্রতি আউন্স স্বর্ণের দাম ১০ ডলার বেড়ে রেকর্ড ১৭৮৩.৩০ ডলারে উঠেছে। এতে সপ্তাহের ব্যবধানে দশমিক ৯৩ শতাংশ এবং বছরের ব্যবধানে প্রায় ২৮ দশমিক ৮৩ শতাংশ বাড়ল স্বর্ণের দাম।

এদিকে আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণের দাম বাড়ার প্রেক্ষিতে গত ২২ জুন বাংলাদেশে দাম বাড়ানোর ঘোষণা দেয় স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের সংগঠন বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস)। সাধারণত ভরিতে এক-দেড় হাজার টাকা করে বাড়ানো হলেও এবার এক লাফে প্রতি ভরি স্বর্ণের দাম পাঁচ হাজার ৭১৫ টাকা বাড়ানো হয়। অবশ্য দেশের বাজারে স্বর্ণের দাম বাড়ানোর পরে আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণের দাম প্রতি আউন্সে ২০ ডলারের উপরে বেড়েছে।

নিউজবিডি৭১/ এম কে / ০১ জুলাই ২০২০

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ফেসবুকে ২৪ লক্ষের পরিবার

বাংলাদেশ

বাংলাদেশ

গত দুই মাসের মধ্যে তিন দফা বন্যার কবলে পড়েছে সিলেট-সুনামগঞ্জ৷ তবে এবারের বন্যা ভয়াবহ রূপ নিয়েছে৷ সিলেটে কেন এত ঘন ঘন বন্যা? গবেষকরা বলছেন,...

কপিরাইট Ⓒ ২০১২-২০২১ নিউজবিডি৭১.নেট । সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। বাড়ী- ৪৯ (১ম তলা), রোড- ১২, সেক্টর-১১, উত্তরা মডেল টাউন, ঢাকা-১২৩০, বাংলাদেশ। প্রকাশক- মোহাম্মদ মানিক খান